পরিবর্তনের জন্য দরকার জাতীয় পার্টি

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, ‘দেশের মানুষ শান্তি চায়, পরিবর্তন চায়। জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় এলে এ অবস্থার অবসান ঘটবে। মানুষ শান্তিতে, সুখে ও নিরাপদে থাকবে। মৃত্যুর আগে জাতীয় পার্টিকে ক্ষমতায় দেখতে চাই।’

শনিবার বগুড়ার পর্যটন মোটেলে জাতীয় পার্টির রাজশাহী ও রংপুর বিভাগীয় প্রতিনিধি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সাবেক রাষ্ট্রপতি বলেন, শান্তি চাই, সুদিন ফিরে চাই, দুর্নীতি চাই না। দেশে মানুষের জীবনের কোনো মূল্য নেই। খুন, গুম নিত্যদিনের ঘটনা। উন্নয়নের মহাসড়কের নামে চলছে দেশে ব্যাংক লুটপাট। শেয়ারবাজার থেকে কোটি কোটি টাকা উধাও হয়েছে। সব জায়গায় অনিয়ম-দুর্নীতি।

তিনি বলেন, ঢাকা থেকে রাস্তা দিয়ে রংপুর গিয়েছি ৮০০ থেকে হাজার বার। তখন সময় লাগত ছয় ঘণ্টা। এখন ১২ ঘণ্টা লাগে। কারণ উন্নয়নের মহাসড়ক এখন খানাখন্দ। এই খানাখন্দ সংস্কারের দায়িত্ব জাতীয় পার্টিকেই নিতে হবে। আগের চেয়ে এখন জাতীয় পার্টি অনেক শক্তিশালী। দুই দলকে মানুষ দেখেছে, এবার জাতীয় পার্টিকে দেখবে। জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য প্রস্তুত। জনগণ জাতীয় পার্টির দিকে তাকিয়ে আছে। এখন মানুষের নিরাপত্তা নেই। দেশের মানুষ ভালো নেই। ব্যবসায়ীদের ব্যবসা নেই। জাতীয় পার্টিই পারে দেশের মানুষের আর্থিক ও সামাজিক নিরাপত্তা দিতে।

এরশাদ বলেন, ‘মেয়েরা স্কুলে যেতে পারে না। রাস্তায় উত্ত্যক্ত হয়, নির্যাতনের শিকার হয়। ছেলেরা এমএ পাস করে চাকরি পাচ্ছে না। কনস্টেবল পদে চাকরিতে ১০ লাখ, এসআই পদে ২০ লাখ, পিয়ন পদে ৫ লাখ টাকা ঘুষ দিতে হয়। আমার সময় এমন ছিল না। এমন ঘুষ নেওয়ার ঘটনা ঘটলে ক্ষমতা ছেড়ে দিতাম। এখন যুবকরা চাকরি না পেয়ে হতাশ হয়ে নেশাগ্রস্ত হচ্ছে। অন্ধকারের দিকে যাচ্ছে। এখন হাত বাড়ালেই ফেনসিডিল, চায়ের দোকান, পানের দোকানে ইয়াবা পাওয়া যায়। এসব অবস্থার পরিবর্তন ঘটাতে হবে। যুবসমাজকে রক্ষা করতে হবে। এ জন্য প্রয়োজন পরিবর্তন। আর পরিবর্তনের জন্য প্রয়োজন জাতীয় পার্টি।’

২৪ মার্চ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে অনুষ্ঠেয় জাতীয় পার্টির মহাসমাবেশ সফল ও সার্থক করতে সবার প্রতি আহ্বান জানিয়ে এরশাদ বলেন, জাতীয় পার্টি এখন ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুত। ২৪ মার্চ জাতীয় পার্টি শক্তি ও সামর্থ্যের প্রমাণ দেবে। এদিন ঢাকা জনসমুদ্রে পরিণত হবে।

জাপা মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদারের সভাপতিত্বে সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন প্রেসিডিয়াম সদস্য জিয়াউদ্দিন বাবলু, স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়ন প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙ্গা, মেজর (অব.) খালেদ আখতার, শরিফুল ইসলাম জিন্নাহ, হুইপ নুরুল ইসলাম ওমর, রংপুর সিটি মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা প্রমুখ।

Check Also

খুলনায় লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নেই, রিটার্নিং কর্মকর্তা পক্ষপাতদুষ্ট

খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. ইউনুস আলীর প্রতি অনাস্থা জানিয়েছে আওয়ামী লীগ। আজ …

Powered by themekiller.com