তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ কী শুরু হবে

বারাক ওবামা যখন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ছিলেন সেই সময় সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ গ্যাস হামলা চালান। এতে এক হাজারের বেশি মানুষের প্রাণহানি ঘটে। ২০১৩ সালের আগস্টের ঘটনা এটি। ওই সময় ডোনাল্ড ট্রাম্প এক টুইট বার্তায় বলেছিলেন, ‘সিরিয়ায় যখন আমরা হামলা চালাতে যাচ্ছি; তখন তা কেন সম্প্রচার করা হচ্ছে? কেন আমরা একটু শান্ত থাকতে পারি না? আমরা যদি হামলা চালাই, তাহলে সেটাকে বিস্ময়কর হিসেবে ধরা যায় না?

এখন সিরিয়া শাসক ও তার মিত্ররা যখন একই ধরনের রাসায়নিক হামলা চালাল ডোনাল্ড ট্রাম্প তখন আবারো টুইট করলেন। টুইটে তিনি বলেন, ‘সিরিয়ায় ছোড়া যে কোনো এবং সব ধরনের ক্ষেপণাস্ত্র গুলি চালিয়ে ভূপাতিত করার হুমকি দিয়েছে রাশিয়া। প্রস্তুত হও রাশিয়া, কারণ সুন্দর, নতুন এবং স্মার্ট ক্ষেপণাস্ত্র আসছে। গ্যাস প্রয়োগে হত্যাকারী জানোয়ারের সঙ্গী হওয়া উচিত নয় রাশিয়ার; যে তার দেশের মানুষকে হত্যা করে উল্লাস করছে।’

অতীতের রেকর্ড বলছে, ট্রাম্পের মতে ওবামা আমলের পররাষ্ট্র নীতি গোপন রাখা উচিত ছিল। কিন্তু প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের বর্তমান কর্মকাণ্ড বলছে, পররাষ্ট্র নীতির গঠন এবং প্রচার উভয়ই টুইটারে হওয়া উচিত। এটি তিনি করেছেন, টুইটারে ঘোষণা দিয়ে যে, রাশিয়া, আসাদ এবং ইরানের জন্য অস্পষ্ট ‘কিছু’ আসছে।

পশ্চিমা বিশ্বের কিছু বিশ্লেষক তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ শুরুর ঘোষণা দেয়ার আবারো একটা সুযোগ পেলেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। আর এটা অপ্রত্যাশিত নয়। তবে সবচেয়ে মজার বিষয় হলো, ক্রেমলিন নিয়ন্ত্রিত গণমাধ্যম রীতিমতো তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের মুডে রুশ নাগরিকদের দিক নির্দেশনা দেয়া শুরু করলো যে, বাঙ্কারে আত্মগোপনে যাওয়ার আগে কি ধরনের খাদ্য-সামগ্রী তাদের কিনতে হবে।

হামলার খবরে সম্ভবত উভয়-পক্ষের লোকজন ভীত-সন্ত্রস্ত্র হয়ে পড়লেন। তবে ট্রাম্পের আদেশ এবং থেরেসা মে ও এমানুয়েল ম্যাক্রোঁর যোগদানের ফলে সিরিয়া অথবা অন্য যে কোনো স্থানে কোনো পরিবর্তন লক্ষ্য করা গেল না। এমনকি প্রকাশ্যে রাশিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্রকে মুখোমুখি হতেও দেখা গেল না।

Check Also

বিয়ের বাইরেও শাহরুখের তিন ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক

শাহরুখ খান ও গৌরীর ১৯৯১ এর ২৫ অক্টোবর বিয়ে হয়। এর এক বছর বাদে মুক্তি …

Powered by themekiller.com