স্ত্রীর মর্যাদা দাবিতে ভাইস-চেয়ারম্যানের বাড়িতে এসআই

পরকীয়া প্রেম থেকে গোপনে বিয়ে অতঃপর স্ত্রীর মর্যদা দাবিতে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যানের বাড়িতে গিয়ে তাণ্ডবের অভিযোগে রাজনগর থানার এসআই নাজমা বেগমকে পুলিশ লাইনে ক্লোজ করা হয়েছে। এ ঘটনায় মৌলভীবাজারের রাজনগরে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

স্থানীয় ও সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, ২০১৪ সালের মাঝামাঝি সময়ে রাজনগর থানায় যোগদান করেন উপপরিদর্শক নাজমা বেগম। প্রায় দুই বছর রাজনগরে থাকেন তিনি। এরমধ্যে জুড়ি উপজেলায় ৩ মাস কাটিয়ে তিনি আবারও রাজনগর থানায় যোগদান করেন।

এদিকে রাজনগর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ফারুক আহমদের থানায় যাওয়া আসার সুবাদে নাজমার সঙ্গে পরিচয় হয় এবং একসময় উভয়ে পরকীয়া সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। পরে তারা গোপনে বিয়ে করেন বলে জানা গেছে।

এসআই নাজমা বেগম ও ভাইস চেয়ারম্যান ফারুক আহমদ উভয়ই বিবাহিত। তাদের আগের সংসারে সন্তানও রয়েছে। উভয়ে গোপনে বিয়ের পিড়িতে বসলেও একসঙ্গে থাকা হচ্ছিল না।

গত বৃহস্পতিবার বিকেলে এসআই নাজমা বেগম ভাইস চেয়ারম্যান ফারুক আহমদের বাড়িতে যান। ওই সময় বাড়িতে কেউ ছিলেন না। কেয়ার টেকার নয়ন মিয়ার সঙ্গে কথা বলেন। এসময় এসআই নাজমা বেগম তার ফোন না ধরা ও তাকে ঘরে না তোলা নিয়ে বিভিন্ন কথাবার্তা বলেন। এক পর্যায়ে ঘরের মালামাল তছনছ করেন বলে অভিযোগ করা হয় এবং কেয়ারটেকারে সঙ্গে তার (এসআই নাজমা) বাকবিতণ্ডাও হয়।

বিষয়টি জানাজানি হলে রাজনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শ্যামল বণিক মৌলভীবাজার পুলিশ সুপারকে জানান। পরে পুলিশ সুপার তাৎক্ষণিক নামজমাকে পুলিশ লাইনে ক্লোজড করেন।

Check Also

কী হচ্ছে পাবর্ত্য চট্টগ্রামে

পার্বত্য খাগড়াছড়ি জেলায় অনিবন্ধিত আঞ্চলিক রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে খুন, গুম, অপহরণ, অগ্নিসংযোগ করাসহ অবৈধ অস্ত্রের …

Powered by themekiller.com